Menu

নভেম্বরে ‘বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসব’

পঞ্চমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসব’। আগামী ২৪ নভেম্বর এর উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। পাঁচদিনের এ উৎসব উৎসর্গ করা হয়েছে প্রয়াত লেখক সৈয়দ শামসুল হককে। গেল সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হয়, আগামী ২৪ থেকে ২৮ নভেম্বর প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত ঢাকার আর্মি স্টেডিয়ামে উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। গত চার বছরের ধারাবাহিকতায় ধ্রুপদী সংগীত ও নৃত্যের গুরুত্বপূর্ণ শাখার উল্লেখযোগ্য পরিবেশনা উপস্থাপন করা হবে এতে। এবারের কার্যক্রমের উল্লেখযোগ্য দিক হলো, নবীন শিল্পীদের উপস্থিতি ও একাধিক যৌথ পরিবেশনা। উৎসবে বাংলাদেশের ১৬৫ জন শিল্পী অংশগ্রহণ করবেন। উদ্বোধনী পর্বে শর্মিলা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রচনা ও নির্দেশনায় নৃত্যনন্দন দলের প্রায় ৬০ জন শিল্পী মণিপুরী, ভরতনাট্যম ও কত্থক রীতির রূপায়ণ পরিবেশন করবেন।
জানা গেছে, এবারের উৎসবে অংশগ্রহণ করবেন বিদুষী গিরিজা দেবী। ৮৭ বছর বয়সী এ শিল্পী এ উৎসবের প্রবীণতম শিল্পী। ভারতীয় রাগসংগীতের কিংবদন্তি আলাউদ্দিন খাঁর পুত্র বিখ্যাত সরোদিয়া ওস্তাদ আলি আকবর খাঁর পৌত্র ওস্তাদ আশিষ খাঁ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসছেন। অন্যবারের মতো এবারো উৎসবমুখর হবে পণ্ডিত হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়া। এ উৎসবে আগে কখনো ‘ম্যান্ডোলিন’ উপস্থাপন করা হয়নি। বাঁশি ও ম্যান্ডোলিনের যুগলবন্দি শোনাবেন গ্র্যামি মনোনীত বাঁশি শিল্পী পণ্ডিত রনু মজুমদার ও ম্যান্ডোলিনের রূপকার ইউ শ্রীনিবাসের ভাই ইউ রাজেশ। প্রতিবারের মতো অনলাইনে নিবন্ধন করে উৎসবে বিনামূল্যে প্রবেশের পাস সংগ্রহ করতে হবে। নভেম্বরের শুরু থেকে সীমিত সময়ের জন্য অনলাইনে নিবন্ধন চলবে। অনুষ্ঠানটি সবার জন্য উন্মুক্ত। অনুষ্ঠানের প্রথম দুদিন পর্যন্ত অফ-সাইট নিবন্ধন চলবে। তৃতীয় দিন থেকে এ সুযোগ বন্ধ করে দেয়া হবে। অনুষ্ঠানস্থলে নিবন্ধন করা যাবে না।